রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ১১:৪১ পূর্বাহ্ন
/ ছড়া-কবিতা
কেউ বোঝে, কেউ বোঝে না, কেউ শোনে, কেউ শোনে না, বোঝা-শোনার ফারাক হাজার মাইল। তেঁতুল বিঁচির ভেতর থেকে যায় কি পাওয়া শাল্লি ধানের চাইল! কেউ দেখে, কেউ দেখে না, কেউ বিস্তারিত
মতি মিয়ার মতি-গতি একটুও ভালো যাচ্ছে না, কেনো জানি ঠিক সময়ে নাস্তা-পানিও খাচ্ছে না! বউ নেই তার, পরশি সকল দুষ্টু লোকের যাঁতায়, এই আশিতেও বিয়ে করার ভূত চেপেছে মাথায়। ছেলে-পুলে,
সিলেট নগরে ‘আলতু মিয়ার ফালতু ঢঙ’ নামের একটি ছড়ার বইয়ের মোড়ক উন্মোচন হয়েছে। এ উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রবীণ লেখক, শিক্ষাবিদ কবি আবুল কালাম আজাদ বলেছেন-ছড়া বাংলা সাহিত্যে এক অনন্য
কবি মো. নুরুল হক অতিরিক্ত কোন কিছুই একদম ভালনা, এ কথাটা সবাই জানে কার্যতঃ মানেনা। অল্প সুখে কাতর যেজন অধিক সুখেও হয় পাথর, অতিরিক্ত লোভের বশে পাগলপারা নিরন্তর। অতি লোভে
মো. নুরুল হক কাটছে সবার দিন- রজনী এ কোন্ বন্দিদশায়! করোনার ভয় বুকে নিয়ে নিত্য- প্রহর কাটায়। করোনাটা মেতেছে এ কোন্ কঠিন মরণ-নেশায়! বিষিয়ে থাকা জীবন নিয়ে আছি বাঁচার আশায়।
মো. নূরুল হক হারামজাদা-হারামখোরে সুযোগ বুঝে কাজ করে, সিন্ডিকেটের মাধ্যমে সে নিত্য-পণ্যের স্টক করে । রোজা এলে-ই অতি লোভে নিত্য-পণ্যের দাম বাড়ায় যে চোরা ‘য় লোকে বলে -কোন কালে চোর