সিলেট ৩১শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ১৭ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৭ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি

নারী উদ্যোক্তা মেলায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী
শেখ হাসিনা ডিজিটাল দেশ গঠন করায় আমরা ঘরে বসে পণ্য কিনতে পারছি

সিলেটের বার্তা ডেস্ক
প্রকাশিত জানুয়ারি ২১, ২০২৩, ০৭:৫৪ অপরাহ্ণ
<span style='color:#077D05;font-size:16px;'>নারী উদ্যোক্তা মেলায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী</span> <br/> শেখ হাসিনা ডিজিটাল দেশ গঠন করায় আমরা ঘরে বসে পণ্য কিনতে পারছি

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এমপি বলেছেন, বাংলাদেশের নারীরা দুর্দান্ত গতিতে এগিয়ে চলেছেন। সিলেটসহ দেশের সকল ধরনের উন্নয়ন-অগ্রগতিতে নারী সমাজ জোরালো অবদান রাখছেন।

দেশের নারী সমাজের ঐক্যবদ্ধ কঠোর পরিশ্রম ও প্রচেষ্টা দেশকে আলোকিত পথে নিয়ে যেতে সাহায্য করছে। এই জোরালো দুর্দান্ত গতি অব্যাহত রাখতে হবে ঐক্যবদ্ধ হয়ে।

কোনো অবস্থাতেই আমাদেরকে পিছিয়ে পড়ে থাকলে চলবে না। বুকে সাহস নিয়ে সামনের দিকে যেতে হবে। বাংলাদেশকে সমৃদ্ধ করা জরুরি দরকার।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, পুণ্যভুমি সিলেটসহ সারা দেশেই অনলাইন ব্যবসা জমজমাট হয়ে উঠেছে। এখন ঘরে বসেই যে কোনো ধরনের ব্যবসা-বাণিজ্য করা কঠিন কিছু নয়।

তারুণ্যপ্রাণ সমাজ এই মহত পেশায় দিন-রাত কাজ করছে এবং জীবন গড়ছে। এই কাজ বেকারতœ দূর করতে অনেক সাহার্য্য-সহযোগিতা করছে। এই সৃজনশীল কাজ মানুষকে দায়িত্বশীল করছে।

শেখ হাসিনা সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠন করেছিলেন বলেই আমরা ঘরে বসে ই-কমার্সের মাধ্যমে সব রকমের পণ্য কিনতে পারছি। এমনকি কুরবানির ঈদে গরুও অনলাইনে বিক্রি হয়েছে প্রচুর। কম খরচে অনলাইনে কুরবানির পশু ক্রয় করা গেছে। আর ই-কমার্সে পণ্য বিক্রেতাদের একটি বড় অংশ নারী।

করোনাকালীন সময়ে ঘরে বসে বিভিন্ন পণ্য বিক্রি করেছেন নারীরা। ই-কমার্সে ‘উই-ই’ নামে নারীদের প্লাটফর্ম রয়েছে। সেখানে ১ লক্ষ ৩৫ হাজার সদস্য রয়েছেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভানেত্রী, জননেত্রী, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করেছেন বলেই বাংলাদেশ আজ বিশ^বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে আছে। প্রতিদিন সকল মানুষের সব কাজ সহজ হচ্ছে। খুব সহজেই মানুষ তার চাহিদা মত কাজ দ্রুত গতিতে করতে পারছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এমপি শনিবার (২১ জানুয়ারি) বিকেল ৫টায় সিলেট নগরের জল্লারপাড়স্থ গ্র্যান্ড প্যালেসের তৃতীয়তলার হল রোমে ‘বাতি ফাউন্ডেশন সিলেট’ আয়োজিত ৩ দিনব্যাপী নিউ ইয়ার ওয়েলকাম ফিস্ট নারী উদ্যোক্তা মেলার সমাপনী দিনে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভানেত্রী, জননেত্রী, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সিলেটসহ দেশকে আলোকিত ও সমৃদ্ধ করতে ব্যাপক ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক ৬ লেনে উন্নীত করণ, ওসমানী বিমান বন্দর আধুনিকায়ন ও উন্নীত করণ, সিলেট রেল স্টেশন আধুনিকায়ণ করতে এবং সুরমা নদী খননসহ যাবতীয় উন্নয়ন-অগ্রগতির কাজ করতে শেখ হাসিনা বদ্ধপরিকর। তিনি বলেন, উন্নয়ন-অগ্রগতির যে মশাল জ¦ালানো হয়েছে তার ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে হবেই। শেখ হাসিনার সরকার নারী বান্ধব সরকার।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সিলেট মহানগর শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সিলেট সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক এনামুল হাবিব ও সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বদরুল হক।

‘বাতি ফাউন্ডেশন সিলেট’ আয়োজিত ৩ দিন ব্যাপি এই মেলার সমাপনী দিনের আলোচনা সভার শুরুতেই শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন ‘বাতি ফাউন্ডেশন সিলেট’-এর এক্সিকিউটিভ ফাউন্ডার ও সফল নারী উদ্যোক্তা শাহানা চৌধুরী।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন এমপিসহ অতিথিরা। অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এমপিকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

গত ১৯ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার এই নারী উদ্যোক্তা মেলা শুরু হয়। নারী উদ্যোক্তা মেলা প্রতিদিনই জমজমাট ছিলো।

প্রথম দিন থেকে শেষ দিন পর্যন্ত ক্রেতাদের উপচেপড়া ভির ছিলো চোখে পড়ার মতো। মেলায় সকল শ্রেণি পেশার মানুষদের সরব পদচারণা ছিলো সকাল থেকে রাত পর্যন্ত। প্রায় ৪০টি প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহণে ১৯-২১ জানুয়ারি প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত নারী উদ্যোক্তা মেলা অনুষ্ঠিত হয়। মেলার টাইটেল স্পন্সর হিসেবে কাজ করেছে A H Z ASSOCIATES।

কো-স্পন্সর হিসেবে কাজ করেছে- নভেম ইকো রিসোর্ট, টিপটপ মার্ট, ফ্যান্টাসি সুইট ও ইপিএস। মেলা সবার জন্য উন্মুক্ত ছিলো। ‘বাতি ফাউন্ডেশন সিলেট’ আয়োজিত ৩ দিনব্যাপী নিউ ইয়ার ওয়েলকাম ফিস্ট নারী উদ্যোক্তা মেলার বিভিন্ন স্টলে ছিলো দেশি-বিদেশি শাড়ি, রেডি-আনরেডি থ্রি পিস, পাঞ্জাবী, টি-শার্ট, শীতের পোশাক, কসমেটিকস, জুয়েলারী সামগ্রী, শিশুদের খেলনা, হোম মেড খাদ্য পণ্য ও পিঠা পায়েসসহ বিভিন্ন পণ্যের সমাহার।

‘বাতি ফাউন্ডেশন সিলেট- এর এক্সিকিউটিভ ফাউন্ডার শাহানা চৌধুরী জানান, তৃণমূল নারীদের স্বাবলম্বী ও আত্মনির্ভরশীল করতে এই মেলা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। বাতি ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সিলেটসহ দেশের নারীদের উন্নয়ন ও অগ্রগতিতে নিরলস কাজ করছে।

সেই ধারাবাহিকতায় পুণ্যভূমি সিলেটে তিনদিনব্যাপী এই নারী উদ্যোক্তা মেলার আয়োজন করা হয়। নারী উদ্যোক্তা মেলায় সর্বস্তরের মানুষকে স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করায় বাতি ফাউন্ডেশনের এক্সিকিউটিভ ফাউন্ডার শাহানা চৌধুরী সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন