আজ বৃহস্পতিবার, ২৫শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১২ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নিজেদের অপরাধ আড়াল করতেই গোয়াইনঘাটের ওসির বিরুদ্ধে মামলা

সিলেটের বার্তা ডেস্ক
প্রকাশিত ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২১, ০৭:৩৬ অপরাহ্ণ
নিজেদের অপরাধ আড়াল করতেই গোয়াইনঘাটের ওসির বিরুদ্ধে মামলা
শেয়ার করুন/Share it

সিলেটের পর্যটন এলাকা গোয়াইনঘাটবাসীর আতঙ্কের নাম ‘আলিম উদ্দিন’। পিতা ইনছান আলীও সেই আতঙ্কের জন্মদাতা।

বাপবেটা কেউ থেকে কেউ কোনোভাবেই পিছিয়ে নয়। ব্যবসায়ী নয় যেনো অপরাধরাজ্যের ডন এরা।

গোয়াইনঘাটের জাফলংয়ের বালুকণাও এর স্বাক্ষ্যবহন করে আসছে। তাদের দাপট আর রক্তচক্ষুর জন্য ভয়ে কেউ তাদের বিরুদ্ধে মাথা তুলে তাকায় না।

সম্প্রতি ইনছান আলী ভাইরাল হয়েছেন ওসির বিরুদ্ধে মামলা করে।
মামলার রহস্যের জট খুলে দিয়েছেন খোদ মামলার স্বাক্ষীরা।

আজ বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) সংবাদ সম্মেলনে স্বাক্ষীরা স্পষ্ট ইনছান আলী ও তার ছেলে আলিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন।

তারা বলেছেন-গোয়াইনঘাট থানার ওসিসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে আদালতে দায়ের দায়ের করা মামলাটি পুরোপুরি মিথ্যা, বানোয়াট ও সাজানো বলে দাবি করেছেন এ মামলার ৩ সাক্ষী ।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সিলেটের গোয়াইনঘাট প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিযোগ করেন গোয়াইনঘাট উপজেলার ২ নং পশ্চিম জাফলং ইউনিয়নের ফেনাইকুনা গ্রামের ব্যবসায়ী মদরিছ আলী।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন,নিজের স্বার্থ হাসিল না হওয়ায় গত ১৪ ফেব্রুয়ারী সিলেটের সিনিয়র স্পেশাল দায়রা জজ আদালতে মামলা করেন গোয়াইনঘাটের জাফলং নয়াবস্তি গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা ইনছান আলী। সংবাদ সম্মেলনে দাবি করা হয় গোয়াইনঘাট থানার ওসিসহ ৯ জনের বিরোদ্ধে উদ্দেশ্য প্রণোদিত একটি মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করেছেন। যদিও অভিযোগটি এখনো আমলে নেয়নি সিলেটের সিনিয়র স্পেশাল দায়রাজজ আদালত। অভিযোগপত্রে ইনছান আলী অনৈতিক স্বার্থ হাসিলের উদ্দেশ্যে স্বাক্ষী হিসেবে আমাদের ৩জনকে মদরিছ আলী, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল জলিল,ফয়জুল ইসলামকে স্বাক্ষি হিসেবে নাম ব্যবহার করা হলেও আমরা ব্যাপারে ঘুনাক্ষরেও অবগত নই। লিখিতি বক্তব্যে তিনি বলেন,জাফলংয়ের শীর্ষ সন্ত্রাসী আলিম উদ্দিন ও তার পিতা ইনছান আলী এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে যাচ্ছেন। আলীমের উপর গোয়াইনঘাটের ২নং পশ্চিম জাফলং ইউনিয়নের মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সফিক মিয়া হত্যা,নারী ও শিশু নির্যাতন সহ সর্বমোট ৯টি মামলা বিদ্যমান রহিয়াছে। তার মধ্যে দুটি মামলায় সে পলাতক রয়েছে।

আরও পড়ুন:  গোয়াইনঘাটে নতুন ঘরের খুশিতে হাসি ফুটছে ৫শ' পরিবারে

ইনছান আলী পুর্ব জাফলং এলাকার চিহ্নিত মামলাবাজ,দখলবাজ ও সন্ত্রাসী হিসেবে সকলের কাছে পরিচিত নাম। আলিম উদ্দিন ১২ বছর বয়স থেকেই তার বাবা ইনছান আলীর সাথে বারকী শ্রমিক হিসেবে কাজ করতো। মাত্র ৭ বছরের ব্যবধানে এখন সে কোটিপতি। তার এখন অঢেল সম্পত্তি। ভাইদের নামেও গড়ে তুলেছে সম্পদের পাহাড়। আর এসব হয়েছে জাফলংয়ের কোয়ারীতে তাদের বেপরোয়া চাদাবাজির কারণে। জাফলং নয়াবস্তির যুবক সালামকে প্রকাশ্যে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হাত-পা ভেঙে দেয়ার পরেই আলেঅচিত হয়েন উঠে ইনছান আলীর পরিবার।

লিখিত বক্তব্যে তিনি আরও বলেন, আলিম উদ্দিন পরিবার পাথর লুটপাটের ঘটনায় প্রতিবাদ করায় স্থানীয় মামার বাজারে পিটিয়ে হত্যা করা হয় সালেক নামের এক ট্রাক চালককে। সংবাদ সম্মেলনে মদরিছ আলী আরও বলেন,গোয়াইনঘাট থানা ওসি আব্দুল আহাদ যোগদানের পর জাফলং নয়াবস্তি এলাকার ইনছান আলী তার ছেলে আলিম উদ্দিনসহ তাদের পোষা বাহিনীদের নিয়ে জাফলং কোয়ারী এলাকা থেকে অবৈধভাবে বোমা মেশিন,বিলাই মেশিন ও সেইভ মেশিন দিয়ে পাথর উত্তোলনের চেষ্টা করলে ওসি তাতে বাধা হয়ে দাড়ান।

আর এ কারণেই এ চক্রটি ওসির বিরোদ্ধে ফুসেওঠে। ওসির বিরোদ্ধে কতিত এ মামলা তার ধারাবাহিকতার অংশ। এছাড়া সম্প্রতি জাফলং এলাকার জনৈক কলেজ পড়ুয়া এক ছাত্রীকে ধর্ষণ ও ছবি ভাইরালের বিষয়ে মামলা রুজুরু করা হলে ওসি আহাদের বিরোদ্ধে চওড়া হয়ে উঠে আলীম উদ্দিনের পরিবার। জাফলং ইউনিয়নের সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সাধারণ সম্পাদক সফিক মিয়ার সাথে প্রকাশ্যে মারামারি ও এঘটনায় সফিক মিয়া হত্যায় আলিম উদ্দিন পরিবারের উপর মামলা গ্রহণ করা হলে আরো চওড়া হয়ে উঠেন ইনছান আলী।

তিনি মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে ষড়যন্ত্রমূলক সংবাদ প্রকাশ ও শেষ পর্যন্ত উল্টো আদালতে ওসিসহ ৯ জনের বিরোদ্ধে মামলা দায়ের করেন। সংবাদ সম্মেলনে মোবাইল ফোনে একাত্মতা পোষণ করেন ৫ নং সাক্ষী রিয়াজ উদ্দিন,১৪ নং সাক্ষী বাহার উদ্দিন ও ২০নং সাক্ষী জাকির হোসেন।

আরও পড়ুন:  গোয়াইনঘাটে ৮৫ ভাগ ফসল ঘরে তুললেন কৃষকরা

সংবাদ সম্মলেন উপস্থিত ছিলেন অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন,মামলার ৭ নং সাক্ষী মো. ফয়জুল ইসলাম ও ২৪ নং সাক্ষী মুক্তিযুদ্ধা আব্দুল জলিল,গোয়াইনঘাট উপজেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক মুজিবুর রহমান প্রমুখ।

সিলেটের বার্তা ডেস্ক


শেয়ার করুন/Share it
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০