আজ বুধবার, ১২ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

লেবাননের রাজধানীতে ভয়াবহ বিষ্ফোরণ, নিহত ১৫

সিলেটের বার্তা ডেস্ক
প্রকাশিত আগস্ট ৫, ২০২০, ০১:২৫ পূর্বাহ্ণ
লেবাননের রাজধানীতে ভয়াবহ বিষ্ফোরণ, নিহত ১৫
শেয়ার করুন/Share it

আন্তর্জাতিক বার্তাঃ লেবাননের রাজধানী বৈরুতে ভয়াবহ বিষ্ফোরণে অন্তত ১৫ জন নিহত ও বহু হতাহতের খবর খবর পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার (০৪ আগস্ট) বাংলাদেশ সময় রাত ১০টার দিকে এ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এ খবর লেখা (বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ১১টা) পর্যন্ত ঘটনাস্থলে ভয়াবহ আগুনের লেলিহান শিখা ছড়িয়ে পড়তে দেখা গেছে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের করা সরাসরি সম্প্রচারে।

বিস্ফোরণের ভয়াবহতায় এলাকার বেশ কয়েকটি ভবন ধসে পড়েছে। দুর্ঘটনাকবলিত এলাকায় উচ্চমাত্রার বিস্ফোরক দ্রব্যের গুদাম রয়েছে বলে জানা গেছে।

এর আগে বৈরুতে ২০০৫ সালে একটি বিস্ফোরণে দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী নিহত হন। আজকের হামলাকে সেই সময়ের হামলার চেয়েও ভয়াবহ বলে দাবি করেছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

ঘটনায় আহত এক ব্যক্তি রয়টার্সকে জানান, ‘আমি জানি না কি হয়েছে। আমি মাছ ধরছিলাম এরই মধ্যে বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটে। কালো ধোঁয়ায় অন্ধকার হয়ে যায় গোটা আকাশ। আমি আহত হয়েছি।’
কয়েকদিন আগে লেবানন ও ইসরায়েলের বিরোধপূর্ণ দক্ষিণ লেবাননের শেবা ফার্মস সীমান্তে গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। ইসরায়েল শীর্ষ সংবাদ মাধ্যম হারেৎজ এটিকে হিজবুল্লাহ কর্তৃক হামলা বলে উল্লেখ করে। এক সাক্ষাৎকারে হিজবুল্লাহর উপমহাসচিব শেখ নাঈম কাসেম বলেন, গত সপ্তাহে সিরিয়ায় সদস্য আলী কামেল মোহসিনকে বিমান হামলার মাধ্যমে হত্যা করে ইসরাইল।
এ ব্যাপারে ইহুদিবাদী ইসরায়েলকে তাদের হিসাব-নিকাশ করতে দেন। ওই সাক্ষাৎকারে তিনি ইসরায়েলকে কঠিন পরিণতির হুমকি দেন। এতে আক্রমণাত্মক অবস্থান নেয় ইসরায়েল। এসব বিষয়ে যখন দু’দেশের সম্পর্ক ফের যুদ্ধাবস্থার চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছায় তখন লেবাননের অভ্যন্তরে এমন বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটলো। তবে এ খবর লেখা পর্যন্ত কোনো পক্ষ কাউকে দায়ী করা বা কেউ হামলার দায়িত্ব স্বীকার করেনি।
আরও পড়ুন: লেবাননের রাজধানীতে ভয়াবহ বিস্ফোরণ, বহু হতাহত (ভিডিও)
উল্লেখ্য, লেবাননের রাজধানী বৈরুতের এ এলাকাতেই ২০০৫ সালে এক বোমা হামলায় প্রাণ হারান সাবেক প্রধানমন্ত্রী রাফিক হারিরি। সেই সময় বিস্ফোরণে হারিরির দেহরক্ষীসহ নিহত হন আরো নয় জন। বিস্ফোরণে আশপাশের বিল্ডিং-এর গুরুতর ক্ষতি হয়। হারিরির গাড়ির কনভয় যাচ্ছিল বৈরুতের পশ্চিমে সেন্ট জর্জ হোটেলের কাছ দিয়ে৷ বোমা ফাটে তখনই। প্রাক্তন লেবানিজ প্রধানমন্ত্রী হারিরিকে সঙ্গে সঙ্গে বৈরুতের আমেরিকান হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। হাসপাতালের সামনে সমবেত হন শোকার্ত বহু মানুষ।
গাড়ি বোমার প্রচণ্ড বিস্ফোরণে এক মিটার গভীর এক ফাটল তৈরি হয় রাস্তায়। কাছাকাছি অবস্থিত একাধিক ভবনের প্রাচীর পুরোপুরি ভেঙে যায়। শহরের ঐ অংশে বহু ব্যাংক আর হোটেল অবস্থিত। আগুনের গনগনে শিখার কারণে জ্বলন্ত গাড়ির ভেতর থেকে হতাহতদের সঙ্গে সঙ্গে বের করে আনা সম্ভব হয় নি৷ অগ্নিদগ্ধ দেহ পড়ে থাকতে দেখা যায় রাস্তার ওপর। লেবানিজ রেডক্রসের কর্মীরা আহতদের সাহায্য করতে এগিয়ে আসে। বহু আহত ব্যক্তিকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷
লেবাননে ১৯৭৫ থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত স্থায়ী রক্তক্ষয়ী গৃহযুদ্ধের পর ওই দেশের রাজনীতির ওপর ব্যাপক প্রভাব রাখেন রাফিক হারিরি৷

আরও পড়ুন:  জঙ্গী সংশ্লিষ্টতা: জামায়াত আমীর ডা. শফিকপুত্র রিমান্ডে
সিলেটের বার্তা ডেস্ক


শেয়ার করুন/Share it
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০