আজ শুক্রবার, ১৯শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এবার জনপ্রতি ফিতরা ৭০ টাকা

সিলেটের বার্তা ডেস্ক
প্রকাশিত মে ৪, ২০২০, ০৪:১৭ অপরাহ্ণ
এবার জনপ্রতি ফিতরা ৭০ টাকা
শেয়ার করুন/Share it

সিলেটের বার্তা ডেস্ক:: এবার জনপ্রতি ফিতরা ৭০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। জাতীয় ফিতরা নির্ধারণ কমিটির সভায় তা নির্ধারণ করে দেয়া হয়।

সোমবার (৪ মে) দুপুরে বায়তুল মোকাররম মসজিদের পূর্ব সাহানে জাতীয় ফিতরা নির্ধারণ কমিটির সভায় এ ফিতরা চূড়ান্ত করা হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন কমিটির সভাপতি ও বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম মাওলানা মিজানুর রহমান।

ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সহকারী জনসংযোগ কর্মকর্তা শায়লা শারমীন স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এতথ্য জানানো হয়েছে।

সভায় উপস্থিত আলেম-ওলামা ও ফিতরা কমিটির সবার মতামতের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত হয় যে ইসলামী শরিয়াহ মতে আটা, খেজুর, কিসমিস, পনির, যব ইত্যাদি পণ্যগুলোর যে কোনো একটি দিয়ে ফিতরা দেওয়া যায়।

আটা দিয়ে ফিতরা আদায় করলে অর্ধ সা’ বা ১ কেজি ৬৫০ গ্রাম বা এর সর্বোচ্চ বাজার মূল্য ৭০ টাকা দিতে হবে।

যব দিয়ে আদায় করলে এক সা’ বা ৩ কেজি ৩শ গ্রাম বা এর সর্বোচ্চ বাজার মূল্য ২৭০ টাকা, গম দিয়ে আদায় করলে এক সা’ বা ১ কেজি ৬৫০ গ্রাম বা এর সর্বোচ্চ বাজার মূল্য ৭০ টাকা, কিসমিস দিয়ে আদায় করলে এক সা’ বা ৩ কেজি ৩শ গ্রাম বা এর সর্বোচ্চ বাজার মূল্য ১৫শ টাকা, খেজুর দিয়ে আদায় করলে এক সা’ বা ৩ কেজি ৩শ গ্রাম বা এর সর্বোচ্চ বাজার মূল্য ১৬৫০ টাকা, পনির দিয়ে আদায় করলে এক সা’ বা ৩ কেজি ৩শ গ্রাম বা সর্বোচ্চ বাজার মূল্য ২২শ টাকা ফিতরা দিতে হবে।

দেশের সব বিভাগ থেকে সংগৃহীত আটা, যব, খেজুর, কিসমিস ও পনিরের সর্বোচ্চ বাজারমূল্যের ভিত্তিতে এ ফিতরা নির্ধারণ করা হয়েছে।

মুসলমানরা নিজ নিজ সামর্থ্য অনুযায়ী ওই পণ্যগুলোর যে কোনো একটি পণ্য বা এর বাজার মূল্য দিয়ে সাদকাতুল ফিতর আদায় করতে পারবেন।

আরও পড়ুন:  বছরের প্রথমদিনে জাফলংয়ে প্রাণ গেল পর্যটকের

ওই পণ্যগুলোর স্থানীয় খুচরা বাজার মূল্যের তারতম্য রয়েছে। এজন্য স্থানীয় মূল্যে পরিশোধ করলেও ফিতরা আদায় হবে।

ফিতরা কমিটির সভায় উপস্থিত ছিলেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক আনিস মাহমুদ, শোলাকিয়া ঈদগাহের ইমাম মাওলানা ফরীদ উদ্দিন মাসউদ, জাতীয় মুফতি বোর্ডের সদস্য সচিব মো. ‍নুরুল আমীন, মদিনাতুল উলুম কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মো. আব্দুর রাজ্জাক, ঢাকা নেসারিয়া কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা কাফীলুদ্দীন সরকার সালেহী, কাদেরিয়া তৈয়বিয়া কামিল মাদ্রাসার প্রধান মুফতি মাওলানা মুহাম্মদ মাহমুদুল হাসান, জামিয়া আশ্রাফিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুল আলীম ফরিদী, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পরিচালক মো. আনিসুজ্জামান শিকদার, মো. আনিছুর রহমান সরকার, উপ পরিচালক ও মুহাদ্দিস মুফতি ওয়ালিয়ুর রহমান খান, সম্পাদক ড. মাওলানা মুশতাক আহমদ, ড. মাওলানা আবদুল জলীল, মুফাস্সির ড. মাওলানা মোহাম্মদ আবুসালেহ পাটোয়ারি, মুফতি মাওলানা মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, ড. মাসুম বিল্লাহ, মিজানুর রহমান সাইদ প্রমুখ।

গেল বছর ফিতরা জনপ্রতি সর্বোচ্চ ১ হাজার ৯৮০ টাকা ও সর্বনিম্ন ৭০ টাকা ছিল। তার আগের বছরে ছিল সর্বোচ্চ ২ হাজার ৩১০ টাকা এবং সর্বনিম্ন ৭০ টাকা।

ঈদ-উল-ফিতরের নামাজের আগে মুসলমানরা নিজ নিজ সামর্থ্য অনুযায়ী ওই পণ্যগুলোর যে কোনো একটি পণ্য বা এর বাজারমূল্য দিয়ে ফিতরা আদায় করে থাকেন।

সিলেটের বার্তা ডেস্ক


শেয়ার করুন/Share it
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১