আজ শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সাবধান মাঠে পেট্রোল টিম: ‘ফেসবুক-ইউটিউবে করোনা নিয়ে গুজব নয়’

সিলেটের বার্তা ডেস্ক
প্রকাশিত এপ্রিল ৭, ২০২০, ০৯:০৯ অপরাহ্ণ
সাবধান মাঠে পেট্রোল টিম: ‘ফেসবুক-ইউটিউবে করোনা নিয়ে গুজব নয়’

তথ্য ও প্রযুক্তি বার্তা::  প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও ইউটিউবে গুজব প্রতিরোধে বিশেষ নজরদারী শুরু করেছে পুলিশের পেট্রোল টিম।

এলক্ষ্যে মাঠে নামানো হয়েছে কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিসিটিসি) ইউনিটের সাইবার ক্রাইম বিভাগকে। ইতোমধ্যেই কয়েকজনের ফেসবুক আইডি ও পেজের পোস্ট নিয়ে তদন্তও শুরু করেছে পুলিশের পেট্রোল টিম। সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলাপকালে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

সাইবার ক্রাইম ইউনিটের একজন কর্মকর্তা বলেন, সোমবার (৬ এপ্রিল) রাতে টোলারবাগ মসজিদের ইমাম মারা গেছেন বলে একজন ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে স্থানীয়দের মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টির পাঁয়তারা করেন। খবর পেয়ে ওই পোস্ট আমরা সংগ্রহ করেছি। জানা গেছে, এটি একটি ফেক আইডি থেকে পোস্ট করা হয়েছে। তিনি আরও জানান, আরও কয়েকজন করোনায় মারা গেছে বলেও সম্প্রতি বেশ কয়েকটি আইডি থেকে পোস্ট করা হয়েছে। ইতোমধ্যে এসব বিষয়ে তদন্তও শুরু হয়েছে।

এদিকে অপরাধ বিশ্লেষকরা বলছেন, করোনাকে ইস্যু করে অনেকেই বিদেশি মুভি থেকে ক্লিপ নিয়ে ভিডিও বানাচ্ছে। তাতে জুড়ে দিচ্ছে নিজের তৈরি গল্প। পুরনো ছবি নিয়ে ফেসবুকে দিয়ে দাবি করছে ‘করোনায় মৃত’। কেউ কেউ কোনো তথ্য যাচাই না করে, কোনো চিকিৎসক-পুলিশ কর্মকর্তার বরাত না দিয়েই ইউটিউব ও ফেসবুকে ছেড়ে দিচ্ছে। এতে অনেকেই বিভ্রান্ত হচ্ছেন। তারা বলছেন, এর ধরনের অপরাধীদের ব্যাপারে এখনই ব্যবস্থা না নিলে সামাজিক বিশৃঙ্খলা তৈরি হবে। তাই এসব গুজব ঠেকাতে পুলিশকে আরও কঠোর হওয়ার পরামর্শ দেন তারা।

গোয়েন্দা সূত্রগুলা বলছে, এ ধরনের অভিযোগ পাওয়ার পর চলতি মাসেই শতাধিক পোস্ট শনাক্ত করা হয়েছে। তদন্তও শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে গুজব সৃষ্টিকারী বেশ কয়েকটি পেজ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তারা বলছেন, এ ধরনের গুজব রটিয়ে চক্রান্তকারীরা দেশে এক ধরনের অস্থিরতা তৈরির চেষ্টা করছে। ইতোমধ্যে বেশ কয়েকজনকে শনাক্তও করা হয়েছে। তাদের আইনের আওতায় আনা হবে।

এই প্রসঙ্গে পুলিশের এআইজি (মিডিয়া) সোহেল রানা বলেন, ‘গুজব ঠেকাতে কঠোর হচ্ছ পুলিশ। সাইবার ক্রাইম ঠেকাতে পেট্রোল টিম মাঠে নেমেছে। এর ধরনের গুজব কারা ছড়াচ্ছে, তারা দেশ না বিদেশ বসে ছড়াচ্ছে, এসব বিষয় মনিটরিং করা হচ্ছে। এ ধরনের কোনো ব্যক্তির সন্ধান পেলে পুলিশের ৯৯৯ কিংবা ৩৩৩ নম্বরে ফোন করতে বলা হয়েছে। ফোন পাওয়া মাত্রই ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট থানাকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

জানতে চাইলে পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ শফিকুল বলেন, ‘আমরা মনিটরিং করছি। না হলে বিভ্রান্তি ছড়াবে বেশি। যে যেভাবে পারছে, করোনা নিয়ে তথ্য দিচ্ছে। কেউ কোনো মুভির ক্লিপ নিয়ে বাংলায় ডাবিং করে চীনের চক্রান্ত বলে চালিয়ে দিচ্ছে। কেউ কেউ সাধারণ মৃত্যুকেও করোনায় মৃত্যু বলে গুজব ছড়াচ্ছে। ’

পুলিশের এই কমিশনার আরও বলেন, ‘অনেকে বিভিন্ন এলাকা লকডাউন কিংবা অগণিত মানুষ করোনায় মারা গেছে বলে বিভ্রান্তিমূলক প্রচারণা চালাচ্ছে। গত কয়েকদিন ধরেই বিভিন্ন জনের ফেসবুকের ওয়ালে এ ধরনের পোস্ট ভাসছে। এসব পোস্ট শনাক্ত করে ব্যবস্থা নিতে পুলিশের পেট্রোল টিমকে মাঠে নামানো হয়েছে।’ গুজব সৃষ্টিকারীরেদ বিরুদ্ধে শিগগিরই ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও তিনি জানান।

সিলেটের বার্তা ডেস্ক


শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯