আজ শুক্রবার, ১লা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১৭ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

১৪টি চারে সেঞ্চুরি করলেন তামিম

সিলেটের বার্তা ডেস্ক
প্রকাশিত মার্চ ৩, ২০২০, ০৩:৩৪ অপরাহ্ণ
১৪টি চারে সেঞ্চুরি করলেন তামিম

১৪টি চারে সেঞ্চুরি করলেন তামিম

খেলাধুলা বার্তা:: ১৪টি চারে সেঞ্চুরি করেছেন তামিম ইকবাল। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে আগ্রাসী রুপে দেখা দিলেন তামিম ইকবাল। তুলে নিলেন ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১২তম সেঞ্চুরি। ১০৬ বলে ১৪টি চারের সাহায্যে সেঞ্চুরির দেখা পান তামিম।

এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত টাইগারদের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ৩৭ ওভারে ২০০ রান। ক্রিজে আছেন তামিম ইকবাল (১০১ রান) ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ (২৫ রান)।

এর আগে মঙ্গলবার (৩ মার্চ) সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। ম্যাচটি শুরু হয় বাংলাদেশ সময় দুপুর ১টায়। সরাসরি সম্প্রচার করছে গাজী টিভি।

টস জিতে ব্যাট করতে নামার পর যথারীতি ঝড় তোলার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন তামিম ইকবাল এবং লিটন দাস। ৬.৩ ওভারেই তারা ৩৮ রানের জুটি গড়ে ফেলেন। সপ্তম ওভারে চার্ল মুম্বার বলের সামনে ব্যাট করছিলেন তামিম ইকবাল। অন্যপ্রান্তে ব্যাট করছিলেন লিটন দাস। নিজের খোলস ছেড়ে বেরিয়ে এসে জিম্বাবুয়ের বোলারদের ওপর চড়াও হয়ে খেলতে শুরু করেন তামিম। লিটন কিছুটা রয়ে-সয়ে খেলছিলেন।

ওভারের তৃতীয় বলটি তামিমের ব্যাটে লেগে চলে আসে বোলারের হাতে। রান নেয়ার জন্য এ সময় ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে আসেন লিটন দাস। বল বোলার মুম্বার হাতে লেগে চলে যায় নন স্ট্রাইক প্রান্তের স্ট্যাম্পে। পরে টিভি রিপ্লেতে দেখা যায় লিটন ক্রিজে পৌঁছার আগেই বল গিয়ে আঘাত হাতে স্ট্যাম্পে। যার ফলে আউট। ১৪ বলে ৯ রান করে আউট হয়ে গেলেন আগের ম্যাচে দুর্দান্ত সেঞ্চুরি করা লিটন দাস।

দুর্ভাগ্যজনক রানআউটের শিকার হলেন নাজমুল হোসেন শান্তও। এ ক্ষেত্রে অবশ্য দোষ তামিম ইকবালের। ১১তম ওভারে ওয়েসলি মাধভেরে বল করেন নাজমুল হোসেন শান্তকে। তার প্যাডে লেগে বল চলে শর্ট ফাইন লেগে। অন্য প্রান্ত থেকে রান নেয়ার জন্য দৌড় দেন তামিম। ফিল্ডারের হাতে বল থাকা সত্ত্বেও স্ট্রাকিং এন্ডের ক্রিজে পৌঁছে যান তিনি। শান্ত রান নিতে না চাইলেও ক্রিজের বাইরেই দাঁড়িয়ে থাকেন। যার ফলে রান আউট হয়ে যান তিনিই। নাজমুল হোসেন শান্ত ১০ বল খেলে করেন মাত্র ৬ রান।

আরও পড়ুন:  মহাজনপট্রির হোটেল সোনালীতে ফুর্তি করতে ৬ নারী-পুরুষ ধরা

এরপর মাঠে আসেন টাইগার উইকেটরক্ষক মুশফিকুর রহিম। ব্যাটিংয়ে নেমে তুলে নিলেন ঝড়ো হাফসেঞ্চুরি। ৪৭ বলে ফিফটির স্বাদ পান তিনি। তবে এরপর আর বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। ২৬তম ওভারে ওয়েসলি মাধেভেরের চতুর্থ বলে তুলে মারতে গিয়ে টিনোটেন্ডা মুতোমবোজির ক্যাচে পরিণত হন। ৫০ বলে ৬টি চারে ৫৫ রান আসে তার ব্যাট থেকে।

বাংলাদেশ একাদশ

তামিম ইকবাল, লিটন দাস, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুশফিকুর রহীম (উইকেটরক্ষক), মোহাম্মদ মিঠুন, মাহমুদউল্লাহ, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), আল আমীন ও শফিউল ইসলাম।

জিম্বাবুয়ে একাদশ

টিনাসে কামুনুকামে, রেজিস চাকাভা, শন উইলিয়ামস (অধিনায়ক), ব্রেন্ডন টেইলর, উইসলে মাধেভের, সিকান্দার রাজা, রিচমন্ড মুতুম্বামি (উইকেটরক্ষক), টিনোটেন্ডা মুতোম্বোদজি, ডোনাল্ড তিরিপানো, চার্ল মুম্বা, চার্ল্টন টিশুমা।

সিলেটের বার্তা ডেস্ক

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১